Sale!

কালোজিরা ফুলের মধু

Attention please: কালোজিরা ফুলের খাঁটি মধু কেনার আগে অবশ্যই নিচের Description বক্সে লিখা গুলো পড়ুন এবং ভিডিও গুলো দেখুন।

(6 customer reviews)

৳ 550.00৳ 1,090.00

Clear

Description

কথায় আছে “কালোজিরা কালো হিরা” এই কথাটি একদম সঠিক কথা। আর এই কালো হিরা বা কালোজিরা ফুল থেকে মৌমাছি যে মধু সংগ্রহ করে, তাকেই বলা হয় কালোজিরা ফুলের মধু।

আমার দীর্ঘদিনের অভিজ্ঞতা থেকে আজকে আপনাদের মাঝে শেয়ার করবো কালোজিরা ফুলের ভেজাল মধু চেনার সিম্পল কিছু ট্রিকস 🙂

মধু খাঁটি না ভেজাল? এটা চেনার জন্য আমাদের অবশ্যই খাঁটি মধু এবং ভেজাল মধু, এই দুইটা মধুর বৈশিষ্ট্যিই কিন্তু জানতে হবে। প্রথমে খাঁটি মধুর বৈশিষ্ট্য জেনে নেওয়া যাক।

কালোজিরা ফুলের খাটি মধুর বৈশিষ্ট্য:

  • দেখতে কালো রংয়ের হয়। (ধনিয়া + অন্যান্য ফুলের মধুর উপস্থিতি কমবেশের কারণে কাল রংটা হালকা বা গাড় হতে পারে)
  • খেতে একেবারে খেজুরের গুড়ের মত স্বাদ লাগে।
  • গন্ধটাও খেজুরের গুড়ের সাথে মিলে যায়।
  • মধুর কোয়ালিটির উপরে ডিপেন্ড করে ঘনত্ব কমবেশি হতে পারে।
  • মধু পাতলা হলে ফেনা হতে দেখা যায়। আর ঘনত্ব বেশি হলে ফেনা হতে দেখা যায় না।
  • সাধারণত কালোজিরা ফুলের খাটি মধু জমে যেতে দেখা যায় না। তবে ধনিয়া ফুল সহ অন্যান্য ফুলের মধুর মিশ্রনের ফলে অনেক সময় জমতে দেখা যায়।

কালোজিরা ফুলের ভেজাল মধুর বৈশিষ্ট্য:

  • দেখতে কালো রংয়ের হয়।
  • খেতে স্বাদ খুবই অরুচিকর। অনেক সময় তিতা তিতা ভাব লাগে। জিব্বা আরষ্ট হয়ে যায়। কস কস অনুভূত হয়। কিছু ভেজাল মধুতে অনেক বেশি ঝাঁজ থাকে। ঝাঁজ কমবেশও হতে পারে।
  • বাজে একটা গন্ধ লাগে। খাঁটি মধুর মতো সম্পূর্ণ খেজুরের গুড়ের মতো লাগে না। মাঝে মধ্যে ধুমাটে গন্ধ ও পাওয়া যায়।
  • ঘনত্ব কমবেশি হতে পারে।
  • এই ভেজাল মধুর সবচেয়ে বড় বৈশিষ্ট্য হচ্ছে, এই মধু পাতলা হলেও আমি কখনই ফেনা হতে দেখিনি। আর ঘন হলে তো ফেনা হবার কোনো সুযোগই নাই।
  • বেশিরভাগ সময় দীর্ঘদিন পরে নিচে চিনির মতো জমে যেতে দেখা যায়।
  • আরও একটি বড় বৈশিষ্ট্য হচ্ছে, মধু যত পুরাতন হতে থাকে ততো বেশি মধুর স্বাদ গন্ধ পরিবর্তন হয়ে দুর্গন্ধ হয়ে যায়।

যতটা সম্ভব সহজে মুল বিষয়গুলো বলার চেষ্টা করেছি। তারপরও একবার পড়ে বুঝতে অসুবিধা হলে দুই তিন বার পড়তে পারেন। আর এই বৈশিষ্ট্য গুলো পড়ে আপনি প্রাথমিক পর্যায়ের জ্ঞান অর্জন করতে পারবেন।

আসল প্রকৃত রহস্য ও গভীর জ্ঞান অর্জন করতে হলে আপনাকে অবশ্যই একই সময়ে কয়েক প্রকার কালোজিরা ফুলের খাঁটি মধু ও কয়েক প্রকার ভেজাল মধু খেতে হবে, দেখতে হবে এবং গভীর পর্যবেক্ষণ করতে হবে। তবেই আপনি কালোজিরা ফুলের খাঁটি মধু এবং ভেজাল মধুর মধ্যে পার্থক্য বুঝতে পারবেন ইনশাআল্লাহ।

আমার জ্ঞানে যা ছিলো তাই বলেছি। অবিজ্ঞ জনেরা যদি আমার এই লিখার মধ্যে কোনো ভুল খুজে পান তাহলে অবশ্যই জানাবেন। আপনার ছাত্র হতে পারলে আমি নিজেকে ধন্য মনে করবো 🙂

MODHU AL-AMIN (a passionate honey seller)
Founder & CEO of KhatiModhu.com
WhatsApp: 01869-663242
Mobile: 01728-338765

কালোজিরা ফুলের খাঁটি মধু কি জমে যায়? নাকি জমে না?

কালোজিরা ফুলের খাঁটি মধুর স্বাদ কি খেজুরের গুড়ের মতো লাগে?

Additional information

Weight N/A
Weight

1kg, 500gm

6 reviews for কালোজিরা ফুলের মধু

  1. ইকরামুল হক জনি

    আলহামদুলিল্লা, মধু খুবই সুস্বাদু। কালো রঙের কালোজিরা ফুলের মধু অনেক উপকারী।

  2. তারেক হাসান

    কালোজিরা ফুলের থেকে সংগ্রহ করা মধুর স্বাদ অনন্য । খাঁটি মধু
    ডটকম থেকে কেনা মধু আমার কাছে নির্ভেজাল মনে হয়েছে । আশা করি ভেজালের ভিড়ে খাঁটি মধু ডটকম তাদের এই নির্ভেজাল কার্যক্রম বহুদিন ধরে চালিয়ে যাবে এবং বর্তমান ও ভবিষ্যৎ মধু ব্যবসায়ীদের জন্য আদর্শ হয়ে উঠবে ।

  3. আজিজুর রহমান দুলাল

    কোরআন-হাদীসে স্বাস্থ্য সুরক্ষায় মধুর অবদান ও মধুর বৈজ্ঞানিক উপকারিতা জানার পর আমার গ্রামের বাড়ি কুষ্টিয়া থাকা অবস্থায় ও বর্তমান ঢাকার বিভিন্ন জায়গা থেকে মধু সংগ্রহ করে বেশ কিছু তিক্ত অভিজ্ঞতার মুখোমুখি হয়েছি। এরপর পূর্বপরিচয়ের সুবাদে Khatimodhu.com এর প্রতিষ্ঠাতা আলামীনের কাছ থেকে মধু সংগ্রহ করি ও আগে খাওয়া ভেজাল মধুর সাথে এই খাঁটি মধুর পার্থক্য বুঝতে পারি। আমার পরবর্তীতে মধু প্রয়োজন হলে কোনো প্রকার দ্বিধা ছাড়াই Khatimodhu.com থেকে মধু কিনবো। Khatimodhu.com থেকে সংগ্রহ করা আমার পছন্দের
    দুই ধরণের মধুর মধ্যে কালোজিরা ফুলের মধুই সেরা মনে হয়েছে। এছাড়াও Khatimodhu.com এর সরবরাহকৃত সুন্দরবনের মধুও ১০ এ ৯ পাওয়ার দাবীদার। খাঁটি মধু সরবরাহ করার জন্য আমি ও আমার পরিবার তোমার প্রতি কৃতজ্ঞ, ধন্যবাদ আলামীন। আল্লাহ তোমার মঙ্গল করুন, আমিন।

  4. Shafiul Karim (verified owner)

    এক সময় বিভিন্ন জায়গা থেকে মধু কিনে বার বার ঠকেছি। এমন হয়েছে যে, এক জায়গা থেকে মধু কিনে এক এক বার এক এক রকম পেয়েছি। ছোট বেলায় মফঃস্বলে গাছ থেকে পাড়া মধুর স্বাদ ঢাকা এসে একবারও পাই নাই। দু’এক সময় সুযোগ পেলে উপস্থিত থেকে চাক ভাঙ্গা মধু সংগ্রহ করতাম। কিন্তু সেভাবে কতটুকুই বা পাওয়া যায়। তাছাড়া সেটাতেও ভেজাল, আর বেশীর ভাগ সময় মধুর মানও ভাল থাকত না। তাই ত্যাক্ত বিরক্ত হয়ে মধু কেনাই সম্পূর্ণ বাদ দিয়ে দেই। অনেক বছর আমার বাসায় কোন মধু কেনা হত না। একটা কথা বলে রাখি, দোকানে পাওয়া যাওয়া মধু আমার দুই চোখের বিষ। যেমন জঘন্য স্বাদ, তেমনই কোন কাজের না। সেটা যত বড় ব্রান্ড হোক না কেন। না কিনলেও মধুর প্রতি আমার টান কিন্তু কমেনি। খোজে থাকতাম কোথায় ভাল মধু পাওয়া যায়। এভাবেই এক সময় খোজ পাই আল আমিন ভায়ের। বেশ কিছু দিন ওনাকে ফলো করি, ওনার কথাগুলো শুনি এবং শেষ পর্যন্ত ‘যাক যা হবার হবে, ঠকলে ঠকবো’ মনোভাব নিয়ে অল্প কিছু মধুর অর্ডার দেই। এবং ওনার কাছে আটকে যাই। আমার প্রথম অর্ডার কম ছিল কিন্তু ওনার আন্তরিকতার কোন কমতি ছিল না। পরিমান যা-ই হোক, আমি যে মধু কিনেছি এতেই যেন উনি অনেক খুশী ছিলেন। আর আমি আলহামদুলিল্লাহ্‌ খুশী ছিলাম ওনার ব্যবহার এবং পন্যের। আল্লাহর প্রতি কৃতজ্ঞ হয়েছিলাম অনেক দিন পর মনের মত মধু পেয়ে আর কৃতজ্ঞ হয়েছিলাম এমন একজন বিক্রেতা পেয়ে। এটা প্রায় দুই-আড়াই বছর আগের কথা, এরপর আমি ওনার কাছ থেকে অনেকবার বিভিন্ন রকম মধু কিনেছি। আল্লাহর রহমতে একবারও ঠকি নাই। সব বারই মনের মত মধু পেয়েছি – শুকুর আলহামদুলিল্লাহ্‌। খাঁটি মধুর ব্যাপারে আল আমিন ভায়ের একটা ঘটনা না বললেই নয়। আমার সবচেয়ে পছন্দের মধু হল কালজিরা ফুলের মধু আর এই মধুর জন্য আমি পুরপুরিই নির্ভরশীল আল আমিন ভায়ের উপর। গত বছর (২০১৯) আমি কয়েকবার ওনার কাছে আমি কালজিরা ফুলের মধু চাইলে প্রতিবারই বলেন – “ভাই আবহাওয়ার কারণে এবার কালজিরার ভাল মধু সংগ্রহ করা সম্ভব হয় নাই। যে মধু আছে তা আপনাকে দেয়া যাবে না। বেশী প্রয়োজন হলে সুন্দরবনের মিক্সড মধুটা নিতে পারেন, ভাল হবে।” অগত্যা সেটাই নেই, এবং মাশাল্লাহ এই মধুটাও অনেক ভাল ছিল। এমনকি আমার বাচ্চারা, যারা মধু খেতে চায় না তারাও এই মধুটা পছন্দ করে। অনেক দিন পর আজকে আবার কালজিরার মধুটা পেয়েছি। যদিও আল আমিন ভাই সতর্ক করেছেন যে, এটা একদম টপ ক্লাস মধু না, লক-ডাউন এবং দেশের বর্তমান অবস্থায় কিছুটা প্রি-ম্যাচিউরড মধু চাক থেকে নামাতে হয়েছে। কিন্তু আমি এই মধু পেয়েই অত্যন্ত আনন্দিত, খুব একটা পার্থক্য বুঝতে পারছি না। আমি অনেক দিন আল আমিন ভায়ের কাছ থেকে মধু কিনি, কখনও কোন রিভিউ লিখি নাই। কিন্তু আজকে মনে হল ওনার এবং ওনার মধুর ব্যাপারে কিছু না বললে নয়। আমি এখানে মধুর গুনাগুন এবং উপকারীতার কথা বলব না, সেটা অল্প/বিস্তর সবাই জানেন। আমি বলব আল আমিন ভাই আর তার খাঁটি মধুর কথা। আজকের এই ভেজাল এবং ঠকবাজীর দুনিয়ায় একজন সৎ বিক্রেতার খোঁজ পাওয়া সৌভাগ্যের ব্যাপার, আর নিশ্চিত নির্ভরতার খাঁটি পন্য পাওয়া তো অসম্ভবের কাছাকাছি। মধুর ব্যাপারে আল আমিন ভাই আর তার মধু আমি তেমনই পেয়েছি। দোয়া করি মধুর ব্যাপারে ওনার সকল প্রচেষ্টা সফল হোক। আল্লাহ ওনার জীবনের সকল ক্ষেত্রে রহমত দান করুন। আর আল আমিন ভায়ের কাছে অনুরোধ, আপনি অনুগ্রহ করে মধুর মানের ব্যাপারে কখনই আপোষ করবেন না যেন আপনার খাঁটি মধু বিশ্বস্ততার একটা ব্রান্ড হয়ে ওঠে।

  5. Jubayer Ahmed

    খুবই চমৎকার মধু। আমার জিবনে খাওয়া সেরা একটি মধু। ধন্যবাদ।

  6. Abdul Kader

    Your Honey is very testy and good. I think this honey is pure. Thank you Alamin bhai.

Add a review

Your email address will not be published. Required fields are marked *